সম্প্রীতির এ দেশে আমরা সবাই মিলে মিশে থাকবো এটির উপর আর কোন কথা নেই : শিক্ষামন্ত্রী

পুজামন্ডপে হামলার ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৯ পরিবারকে বিদ্যানন্দের সহায়তা
নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে পুজামন্ডপে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৯টি পরিবারকে পুনর্বাসনে নগদ অর্থ সহায়তা দিয়েছে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন। ২৪ অক্টোবর রোববার সকালে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর মাঝে নগদ ১১ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ সহায়তা হস্তান্তর করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, চাঁদপুর-৩ (সদর-হাইমচর) আসনের সংসদ সদস্য ও শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি। এর মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি পরিবারকে ক্ষতির প্রকৃতি অনুসারে সর্বনিম্ন নগদ দশ হাজার টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সহায়তা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সরকারের পাশাপাশি বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন যে বড় সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে, তা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে ঘুরে দাঁড়াতে সহায়ক হবে।
তিনি আরও বলেন, এই বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন মানুষের কল্যানে অনেক ভালো কাজ করে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বাধীন বাংলাদেশে আমরা জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সবাই স্ব স্ব অধিকার নিয়ে থাকি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সে লক্ষ্য নিয়েই কাজ করে যাচ্ছেন। সম্প্রীতির এই দেশে সবাই আমরা মিলেমিশে থাকবো, এটির উপরে আর কোন কথা নেই। তিনি বলেন, অপশক্তি যারা আজও অনিষ্ট করার অভিপ্রায়ে ঘুরে বেড়ায় তারা পার পাবেন না। চাঁদপুরসহ দেশের কয়েকটি জায়গায় তারা সম্প্রতি যে তান্ডব চালিয়েছে, তারা আমাদের সকল ভালো কাজের শত্রু, দেশের শত্রু। এদের খোঁজে বের করতে হবে। এরা এদেশের মানুষের অধিকার খর্ব করে বেঁচে থাকতে পারে না। আর তাদের রুখে দিতে হলে আমাদের প্রশাসনের পাশাপাশি রাজনীতিক, সামাজিক, সকল শ্রেনিপেশার মানুষকেও এগিয়ে আসতে হবে।
এ সময় তিনি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সঙ্গে কথা বলেন এবং সহায়তার টাকা কিভাবে খরচ করবে তার দিকনির্দেশনা দেন। একই সাথে তিনি বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকদের ধন্যবাদ জানান।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব বক্তব্যে চাঁদপুরর জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর আর্থিক ক্ষতি হয়তো আমরা পুষিয়ে দিতে পারবো। কিন্তু তাদের হৃদয়ের যে রক্তক্ষরণ সেই ক্ষতি আমরা কোনোদিন হয়তো পুষিয়ে দিতে পারবো না।
ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্দেশ্যে ডিসি তিনি বলেন, ‘আপনি-আপনারা একা নন, পুরো বাংলাদেশ আছে আপনার পাশে’ এ বার্তাটিই আমরা পৌঁছে দিতে চেয়েছি। গত কয়েকদিন আমরা ঘরে ঘরে গিয়ে ক্ষয় ক্ষতির পরিমাণ যাচাই করে ৯ পরিবারকে নগদ ১১ লক্ষ টাকা ও ঘরে রান্নার জন্য তৈজসপত্র ও কাপড় দিয়েছি।
বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বোর্ড মেম্বার জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ পিপিএম (বার), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দাউদ হোসেন চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পুজা উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকরা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *