হাজীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে ৭টি বসত ঘর পুড়ে ছাই

মুন্সী মোহাম্মদ মনির/শাখাওয়াত হোসেন শামীম :
চাঁদপুররে হাজীগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৩ পরিবারের ৭টি বসত ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়- ক্ষতি হয়। ঘটনাটি গতকাল ৫ জুন রোববার উপজেলার ৬ নং বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড (মধ্য বড়কুল) তোরাবালী বেপারী বাড়ির প্রবাসী সুমনের ঘরের এককোণ থেকে অগ্নিকান্ডের বিস্তার ঘটে। আগুনের লাল শিখা ছড়িয়ে পড়ে চার পাশে, পুড়ে ছাই হয়ে যায় ওমান প্রবাসী হানিফ, টাইলস মিস্ত্রি আরিফ ও কৃষক মোহাম্মদ মিয়ার ঘর।
আগুন দেখে কোনোমতে নিজের জীবন বাঁচাতে ঘর থেকে বেরিয়ে পড়েন তারা।
তবে পুড়ে গেছে কুয়েত প্রবাসী সুমন, ওমান প্রবাসী হানিফ, টাইলস্ মিস্ত্রী আরিফ ও কৃষক মোহাম্মদ মিয়ার ঘরে থাকা সব কিছু। ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডে রাতে নিজের সব কিছু হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিন পরিবারের সকল সদস্যারা।
ক্ষতিগ্রস্ত টাইলস্ মিস্ত্রী আরিফ জানান, আমাদের তিন ভাইয়ের পাঁচ লাখ টাকার লোন আছে। ওমান প্রবাসী মেঝো ভাই হানিফ টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছে না। সে অনেক অসুস্থ।
অসুস্থ শরীর নিয়ে পড়ে আছে প্রবাসে, কাজ করতে পারছে না। এর মধ্যেই অগ্নিকাণ্ডে পরিবারটা এখন পথে বসতে হলো। গভির রাতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় হাজীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট। দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।
ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান ও প্রত্যক্ষদশীরা ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে ক্ষতিগ্রস্ত নিঃস্ব পরিবারের মাঝে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়ার জন্য ইউএনও, জেলা প্রশাসক ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর অবঃ রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের কাছে আহবান জানান।
তিনি আরো জানান, ক্ষতিগ্রস্ত সুমন, হানিফ ও আরিফের মা, স্ত্রী ও সন্তানরা মিলে ১৩ সদস্যের পরিবার। দুপুরে একবেলা খাবার গোসল করে পরনের কাপড় পরিবর্তন করার একমাত্র আশা ভরসা এখন তাদের প্রয়োজন সহযোগিতার।
ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন, হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.