হাজীগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে ২ শিশুসহ ৩ জন মৃত্যু

শাখাওয়াত হোসেন শামীম :

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে ২ শিশুসহ ৩জন মৃত্যুবরণ করেছে। বুধবার সকালে হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ১২নং ওয়ার্ড রান্ধুনীমুড়া গ্রামের ছৈয়াল বাড়ির মনোয়ার হোসেনের ছোট মেয়ে খাদিজা আক্তার নামের আড়াই বছরের শিশু পানিতে পড়ে মৃত্যুবরণ করে।

একই দিন দুপরে মতলব দক্ষিণের বাটরা গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ২ বছর বয়সি মেয়ে মাইশা হাজীগঞ্জের কাপাইকাপ গ্রামে খালার বাড়ী বেড়েতে এসে সবার অগোচরে বাড়ীর পুকুরের পানিতে পড়ে মৃত্যুবরণ করেন। শিশুটিকে খুঁজে না পেয়ে পুকুরে জাল বেড় দিয়ে মাইশার নিথর দেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। পরবর্তীতে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত্যু ঘোষণা করে।

এদিক উপজেলার ৬নং বড়কুল পূর্ব ইউনিয়ন ৯নং ওর্য়াড মোল্লাডহর গ্রামের ছৈয়াল বাড়ীর মৃত আনোয়ার মিয়ার স্ত্রী শিরিন বেগম (৫০) দুপরে পুকুরের পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণ করেন।

নিহত শিরিন বেগমের বড় ছেলের স্ত্রী মেহের বেগম জানান আমার শাশুড়ী দুপরে রান্না শেষে পুকুরে গোসল করতে যায়, ফিরতে দেরী হওয়ায় বড় অনেক খুঁজাখুঁজি পর এক পর্যায় পানিতে ভাসমান অবস্থায় দেখতে পায়।
পরে স্থানীয় মৃতুদেহ উদ্ধার করে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্ব্যাস্থ কমপ্লেস্ক নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য থানায় নিয়ে গেলে পরিবারের সদস্যদের কোন অভিযোগ না থাকায় মৃতদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

ছেলে তদন্ত এস আই জয়নাল আবেদীন কে বলে আমার মা র্দীঘ দিন যাবৎ (মৃগ রোগে) আক্রান্ত সে প্রায় সময় মাথা চক্কর দিয়ে পড়ে যাইতো। আমার মা গোসল করতে গিয়ে মাথায় চ্ক্কর দিয়ে পড়ে ডুবে যায়। মায়ের মৃত্যু এভাবে হবে ভাবিনি।আমার মায়ের মৃত্যু জন্য কাউকে সন্দেহ করি না বা কাহারো প্রতি অভিযোগ নাই।

পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আহমেদ তানভির হাসান বলেন, শিশুটিকে আমরা হাসপাতালে মৃত অবস্থায় পেয়েছি।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ বলেন, নিহত শিশুর পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় এবং লিখিত আবেদনের ভিত্তিতে ময়নাতদন্ত ছাড়া শিশু খাদিজার মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *