হানারচরে নৌকার প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে হামলা-ভাংচুর, ককটেল বিস্ফোরণ

আশিক বিন রহিম :
চাঁদপুর সদর উপজেলার ১৩নং হানারচর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও ককটেল বিষ্ফরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ৬ নভেম্বর শনিবার সন্ধ্যায় ইউনিয়নের হরিনা চৌরাস্তায় এই ঘটনা ঘটে। অজ্ঞাত পরিচয়ের দুর্বৃত্তরা মোটরসাইকেল যোগে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী মুকবুল হোসেন মিয়াজীর নির্বাচন অফিসে অতর্কিত ককটেল হামলা চালায়।
এই ঘটনায় এলাকাজুড়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো পর্যন্ত শনাক্ত করা যায়নি।
খবর পেয়ে চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) সুদীপ্ত রায়, চাঁদপুর মডেল থানার রাশেদুল ইসলাম তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
নৌকার প্রার্থী ও তার সমর্থকদের অভিযোগ, প্রতিপক্ষ বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতীকের মোজাম্মেল হোসেন গাজী ও সমর্থকেদর কার্যকলাপ এটি।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও নির্বাচনী কার্যালয়ে দায়িত্বে থাকা সিদ্দিকুর রহমান জানান, আমরা সন্ধ্যার সময় বাজারে নাস্তা করছিলাম। এসময় হরিনা ফেরিঘাট থেকে তিনটি মোটরসাইকেলে করে হ্যামলেট পরিহিত তিন জন আরোহী নির্বাচন কার্যালয়ে সামনে আসে। কিছু বুঝে উঠার আগেই তারা তিনটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় এবং তিন রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে এরপর তারা চাঁদপুর শহরের দিকে চলে যায়।
এদিকে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয়ে ককটেল বিষ্ফরণ ও ভাংচুরের ঘটনায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ মিছিল করেন।
এছাড়াও এই ঘটনায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা যায়।
ঘটনস্থল পরদর্শনকারী এসআই রাশেদুল ইসলাম জানান, প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী আমাদেরকে জানিয়েছেন হেলমেট পরা দু’জন ব্যক্তি মোটরসাইকেলযোগে এসে নৌকার প্রার্থীর অস্থায়ী নির্বাচনী কার্যালয়ের চেয়ার ভাংচুর করে, অফিসের ভেতরে ও বাইরের পোস্টারগুলো ছিড়ে জেলা শহরমুখী রাস্তা হয়ে চলে যায়।
চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) সুদীপ্ত রায় বলেন, যারা এ অপকর্ম করেছে তাদেরকে খুজে বের করার চেষ্টা চলছে। আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *