কচুয়া প্রেসক্লাবের উদ্যোগে কৃতীজনদের সংবর্ধনা ও সন্মাননা স্মারক প্রদান

মানিক ভৌমিক :
৪০তম বিসিএস-এ বিভিন্ন ক্যাডারে কচুয়া থেকে ৫ জন সুপারিশকৃত ব্যক্তি ও সদ্য ‘মাইক্রোসফটে’ নিয়োগপ্রাপ্ত কচুয়ার কৃতি সন্তান রাজিব পালকে কচুয়া প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে গতকাল সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। এছাড়া কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান ডিপার্টমেন্টের প্রধান ও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. দুলাল চন্দ্র নন্দীকে গুনিজন সন্মাননা পদক প্রদান করা হয়।


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কচুয়া পৌরসভার মেয়র নাজমুল আলম স্বপন। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলম। কচুয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি প্রিয়তুষ পোদ্দার ও রাকিবুল হাসানের সঞ্চালনায় এবং কচুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মানিক ভৌমিকের সভাপ্রধানে সম্বর্ধিত অতিথিগণ তাদের সফলতার গৌরবময় ইতিহাস তুলে ধরেন। গতকাল বিকাল ৪টায় নবনির্মিত কচুয়া প্রেসক্লাবের ২য় তলায় কচুয়ায় ব্যতিক্রমী এই গুণিজন মেলা প্রেসক্লাবের অভিষেক অনুষ্ঠান হিসাবে স্মরণীয় হয়ে থাকবে বলে নেতৃবৃন্দরা মনে করেন।
গুনিজন সন্মাননা পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তি ড. দুলাল চন্দ্র নন্দী। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিসংখ্যান বিষয়ে সন্মান ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। উভয়টিতে তিনি প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হন। তিনি বর্তমানে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান এবং কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির বর্তমান সভাপতি। তিনি ৪ নং পালাখাল মডেল ইউনিয়নের ঘাগড়া গ্রামের বাবু হরিশ্চন্দ্র নন্দী মহাশয়ের গর্বিত সন্তান।

৪নং পালাখাল মডেল ইউনিয়নের মজুমদার বাড়ির আঃ গনি মজুমদারের পুত্র আবু জাফর মজুমদার বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) পড়েছেন। তিনি বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন।

১নং সাচার ইউনিয়নের জোয়ারীখোলা গ্রামের মোঃ সফিকুল ইসলাম মুন্সির পুত্র মোঃ মাহমুদুল হাসান উৎপল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একাউন্টস এন্ড ইনফরমেশন্স বিষয়ে মাস্টার্স করেছেন। তিনি অডিট এন্ড একাউন্টস ক্যাডারে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন।

৯নং ইউনিয়নের কুটিয়া গ্রামের মৃত আবু তাহের-এর পুত্র আব্দুল কুদ্দুস ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স করেছেন। তিনি শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন।

৮নং ইউনিয়নের নোয়াদ্দা গ্রামের মোঃ দেলোয়ার সরকারের পুত্র মোঃ মাসুম বিল্যাহ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উদ্ভিদবিদ্যা নিয়ে মাস্টার্স করেছেন। তিনি বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন।

৯ নং ইউনিয়নের সাহেদাপুর গ্রামের মোঃ আমির হোসেনের পুত্র হাছিব আল মাহমুদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মনোবিজ্ঞান বিষয়ে মাস্টার্স করেছেন। তিনি বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.