চাঁদপুরে চাঁদার দাবিতে ড্রিংকিং ওয়াটার ফ্যাক্টরি ভাঙচুর লুটপাটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেক :
চাঁদপুর শহরে ঝমঝম ড্রিংকিং ওয়াটার ফ্যাক্টরি ভাঙচুর এবং লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। সন্ত্রাসীরা ফ্যাক্টরির ফিল্টার মেশিন, স্ক্যেনার মেশিন, ওয়াটার মেশিন, কম্পিউটার, দুটি ফটোকপি মেশিন, সিসি ক্যামেরা ক্যাশ, বাক্স সহ অন্যান্য যন্ত্রপাতি ও মূল্যবান মেশিন ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়।

৩০ জুলাই রাত আনুমানিক সাড়ে ১০টার সময় শহরের মেজর রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম সড়ক (সাবেক বাগাদী রোড) পাশে বাবলু ব্রাদার্সের সফিউদ্দিন উদ্দিন বাবলুর মালিকানাধীন ওয়াটার ফ্যাক্টরিতে এই ঘটনা ঘটে।

ক্ষতিগ্রস্তরা জানান, সন্ত্রাসীরা একই রাকে প্রতিষ্ঠানটির মালিকের বোনের নির্মাণাধীন বাড়ির দেয়াল ভেঙে ফেলে এবং একটি পানির পাম্প মেশিন নিয়ে যায়। এছাড়া তার ভগ্নিপতি সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন নূর মোহাম্মদকে মারধর করেছে।

খবর পেয়ে চাঁদপুর শুক্রবার রাতেই চাঁদপুর নতুনবাজার পুলিশ ফাঁড়ি উপ পরিদর্শক ইসমাইল হোসেন ও শাহরিন অন্যান্য পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

১ আগস্ট সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গেলে ঝমঝম ড্রিংকিং ওয়াটার ফ্যাক্টরির দায়িত্বরত কর্মচারি স্বপন ভুইয়া জানান, শুক্রবার বন্ধের দিন হওয়ায় আমাদের প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিলো। রাতে আমরা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের খবর পাই। এসে দেখি আমাদের ফ্যাক্টরির দরজা ভেঙে সন্ত্রাসীরা ভিতরে ঢুকে বোতল, ফিল্টার মেসিন, এসিআর মেশিন, ওয়াটার মেশিন, মেশিন স্ক্যেনার, কম্পিউটার, দুটি ফটোকপি মেশিন, সিসি ক্যামেরা ক্যাশ, এসি ভাংচুর করে গুড়িয়ে দিয়েছে। আমাদের ক্যাশবাক্স ভেঙে নগদ প্রায় ৬০ হাজার টাকা নিয়ে গেছে।

প্রতিষ্ঠানের মালিক সফি উদ্দিন বাবলু জানায়, স্থানীয় মৃত দুলাল ভুইয়ার ছেলে আরাফাত রহমান রিংকু আমার কাছে চাঁদা দাবী করে। চাঁদা না দেয়ায় তারা আমার প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। আমি অনেক কষ্টে তিল তিল করে এই প্রতিষ্ঠানটি দাঁড় করিয়েছিলাম। এখানে স্থানীয় ২০/২৫ জন যুবক কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছে। আমার সব কিছু সন্ত্রাসীরা শেষ করে দিয়েছে।

তিনি আরো জানান, এ বিষয়ে আমি চাঁদপুরের মান্যবর পুলিশ সুপারকে ঘটনার বিষয়ে অবহিত করেছি। সন্ত্রাসী কর্মাকাণ্ডের বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে। আমার ভগ্নিপতি সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন নূর মোহাম্মদকে মারধরের ঘটনায় তিনিও পৃৃথকভাবে একটি মামলা করবেন। আমি প্রশাসনের কাছে এই ঘটনার সঠিক বিচার দাবী করছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *