পৌর এলাকার পূজা মণ্ডপগুলো মনিটরিং করবে স্ব স্ব ওয়ার্ডের কাউন্সিলরগণ : জিল্লুর রহমান জুয়েল

চাঁদপুর সদর উপজেলা পূজা পরিষদের সাথে চাঁদপুর পৌর মেয়রের মতবিনিময়
: নিজস্ব প্রতিবেদক :
আসন্ন শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে চাঁদপুর সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হয়েছেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল। গতকাল ৫ অক্টোবর মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় চাঁদপুর পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় পৌর মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, আমাদের মধ্যে যদি সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক থাকে তবে আমরা ভালো কাজগুলো করতে পারব। এ বছর আমরা আনন্দঘন পরিবেশে সবাই মিলে শারদীয় দুর্গোৎসব পালন করব। শারদীয় দুর্গাপূজা চলাকালে চাঁদপুর পৌরসভার আয়ত্বে থাকা ২৯টি পূজামণ্ডপে তৃতীয় শক্তি যেন উস্কানি দিতে না পারে সেদিকে দৃষ্টি রাখতে হবে। পূজা চলাকালে চাঁদপুর পৌরসভায় কন্ট্রোল রুম খোলা হবে। কন্ট্রোল রুমের মোবাইল নাম্বার প্রতিটি পূজামণ্ডপে দেওয়া হবে। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে তাৎক্ষণিক আমাদেরকে জানাতে হবে। পৌর এলাকার পূজা মণ্ডপগুলো মনিটরিং করবে স্ব স্ব ওয়ার্ডের কাউন্সিলরগণ। চাঁদপুর পৌরসভা এখন থেকে অতিরিক্ত পরিচ্ছন্ন কর্মী ও মোবাইল গাড়ি ব্যবস্থা রাখবে। যেন দ্রুত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করতে পারে পূজা মন্ডপ এর আশপাশের এলাকা। দুর্গা সমাপনি বিসর্জনের দিন পুরাণবাজার সাহপাতাল ঘাট ও নতুন বাজার এলাকার চৌধূরী সরজমিনে দেখে সংস্কার করা হবে। তাছাড়া পূজা উপলক্ষ্যে পৌর এলাকার ২৯টি মন্দিরের সামনের সড়কে আলোর ব্যবস্থা করা হবে চাঁদপুর পৌরসভার পক্ষ থেকে। তাছাড়া যে সব সড়কে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে পূজার আগেই তা রিপেয়ারিং করা হবে যেন পূজার আগত ভক্তগণ কোনো ধরনের সমস্যায় পরতে না হয় সে জন্য।
চাঁদপুর পৌরসভার ১৪ নং ওয়ার্ড বাবুরহাটে ও আমরা নজরদারি করবো। আমরা চাঁদপুর পৌরসভার উদ্যোগে পৌর এলাকায় ৫ শ সি সি ক্যামেরা স্হান করবো। যাতে করে শহরে কোনো ধরনের অপরাধ না সংঘটিতহয় সে জন্য। তার মনিটর ১ টি চাঁদপুর পৌরসভায় আর একটি থাকবে পুলিশ সুপারের কক্ষে। দূর্গা দেবীর বিসর্জনের সময় বিসর্জন স্থানে নৌ পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস দায়িত্ব পালন জন্য অনুরোধ করা হয়। বিসর্জন স্থানে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করা হবে পৌরসভার মাধ্যমে আলোর ব্যবস্থা করা হবে পৌরসভার মাধ্যমে।
এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ আলী মাঝি,এডভোকেট হেলাল হোসাইন, সচিব আবুল কালাম ভূঁইয়া, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ, সিনিয়র সহ-সভাপতি নরেন্দ্র নারায়ণ চক্রবর্তী,হরিবোলা সমিতির সভাপতি অজয় ভৌমিক, পিপি অ্যাডভোকেট রণজিৎ রায় চৌধুরী, পৌর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাধা গোবিন্দ গোপ, সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক বিমল চৌধূরী, সাংগঠনিক সম্পাদক গোপাল সাহা, পুরান বাজার রাম ঠাকুর দল প্রাঙ্গণে সভাপতি পরেশ মালাকার, কাউন্সিলর মালেক শেখ, শফিকুল ইসলাম,গোপাল জিউর আখড়া কমিটির বাপ্পি পাল, নতুন বাজার পালপাড়া শিতলা মায়ের মন্দির কমিটির নির্মল পাল, পুরান বাজার হরিসভা মন্দির কমিটির কার্তিক সরকার, প্রতাপ সাহা রোড লোকনাথ মন্দির কমিটির রণজিৎ সাহা মুন্নাসহ আরো অনেকে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *