মতলব উত্তরে অবৈধ ট্রলির চাপায় স্কুলছাত্র নিহত

কামরুজ্জামান হারুন :
চাঁদপুরের মতলব উত্তরে অবৈধ ট্রলির চাপায় এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। ওই স্কুলছাত্রের নাম রাফি (১০)। সে ওটারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র। তার শ্রেণী রোল ৩৮। রাফির পিতা প্রবাসে থাকে। রাফি বৈদ্যনাথপুর গ্রামের রফিক সরকারের ছোট ছেলে। তারা দুই ভাই এক বোন।
ঘটনাটি ঘটেছে মতলব উত্তর উপজেলার গজরা ইউনিয়নের কাশিমনগর গ্রামের চৌরাস্তায়।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, রোববার সকাল সাড়ে দশটায় সাইকেল ঠিক করার জন্য তিন বন্ধু রাফি, সোহান, সিফাত কাশিমনগর যায়। সাইকেল ঠিক করে বাড়ি আসার পথে কাশিনগর চৌরাস্তায় তারা তিন বন্ধু দাঁড়িয়ে থাকে। হঠাৎ অবৈধ ট্রলি গাড়ি এসে রাফির উপর উঠিয়ে দেয়। ফলে সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়।
প্রত্যক্ষদর্শী ও রাফির বন্ধু সিফাত (১০) এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন, তারা তিন বন্ধু সাইকেল ঠিক করার জন্য কাশিমনগর গিয়েছিল। আসার পথে তারা কাশিমনগর চৌরাস্তায় দাঁড়িয়েছিল। ওই সময় হঠাৎ অবৈধ ট্রলি গাড়ি এসে রাফিকে চাপা দেয়। এতে রাফির মাথা থেঁতলে রাস্তা রক্তাক্ত হয়ে যায়। পরে তাকে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।
ওটারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জেসমিন সুলতানা জানান, রাফি অত্যন্ত নম্র, ভদ্র এবং মেধাবী। তার হাতের লেখা ও সুন্দর ছিল।সে নিয়মিত স্কুলে আসতো। এভাবে অকালে ছেলেটির প্রাণ যাবে তা আমরা ভাবতে পারি নি।
গজরা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ছারফুল আমিন মোল্লা জানান, রাফি বৈদ্যনাথপুর গ্রামের রফিক সরকারের ছেলে।
রাফির বাবা মালয়শিয়া থাকে। রাফির মা মায়ানুর বেগম চিকিৎসার জন্য ঢাকায় ছিল। ছেলের মৃত্যুর কথা শুনে বাড়িতে আসে। রাফিরা দুই ভাই এক বোন। রাফি সবার ছোট। তাঁর অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মা, ভাই, বোন আত্মীয় স্বজনের কান্নায় আকাশ ভারি হয়ে উঠেছে।
মতলব উত্তর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রমিজ উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে যাই। পরে হাসপাতাল থেকে রাবির লাশ বৈদ্যনাথপুর গ্রামে গ্রামে নিয়ে যায়। পরে লাশ থানায় নিয়ে এসেছি। ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে পাঠানো হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.