চাঁদপুরে ৬ লাখ ৩০ হাজার শিশুকে হাম রুবেলার টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা

ইব্রাহীম রনি :
চাঁদপুরে শুরু হয়েছে হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইন। এবার জেলার ৬ লাখ ৩০ হাজার ৮২৮ জন শিশুকে হাম-রুবেলার টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এর মধ্যে রয়েছে ৯ মাস থেকে ৫ বছর বয়সী ২ লাখ ৬৮ হাজার ১১১ জন শিশু এবং ৫ বছর থেকে ১০ বছরের কম বয়সী ৩ লাখ ৬২ হাজার ৭১৭ জন শিশু। পৌরসভা পর্যায়ে গত ১২ ডিসেম্বর থেকে হাম-রুবেলা টিকাদান শুরু হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ে আগামী ১৯ ডিসেম্বর থেকে এ কার্যক্রম শুরু হবে। যা চলবে ছয় সপ্তাহ। প্রতি সপ্তাহে ৪ দিন টিকা দেয়া হবে। অর্থাৎ এ ক্যাম্পেইন চলবে ২৪ দিন ধরে। এ কার্যক্রম চলবে জেলার ৮টি উপজেলার ৯২টি ইউনিয়নে।
সিভিল সার্জন মো. সাখাওয়াত উল্লাহ মঙ্গলবার এক প্রেস কনফারেন্সে এ তথ্য জানান। তিনি জানান, হাম-রুবেলা টিকার ক্যাম্পেইটি আরও আগেই হওয়ার কথা ছিল। সকল প্রস্তুতি নেয়ার পরও করোনার কারণে তা নির্ধারিত সময়ে করা যায়নি।
সিভিল সার্জন জানান, হাম-রুবেলা টিকা দেয়ার জন্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্বাস্থ্যকর্মীরা অভিভাবকদের ইনভাইটেশন কার্ড পৌছে দিবে। সেখানে বলা থাকবে কোন কেন্দ্রে কবে ঠিকা দিবেন। তবে ইনভাইটেশন ছাড়াও টিকা দেয়া হবে। কাউকে ফিরিয়ে দেয়া হবে না। সকল শিশুদের অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান, আপনারা আপনার শিশুকে নিকটস্থ কেন্দ্রে টিকাদানের জন্য নিয়ে আসুন।
সিভিল সার্জন জানান, করোনার কারণে এবার আমরা স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে কেন্দ্র বাড়িয়ে ৩ গুণ করা হয়েছে। প্রতিটি ওয়ার্ডে ৩টি করে কেন্দ্র থাকবে। আশ্রায়ণ প্রকল্পগুলোতে ক্রাশ প্রোগ্রাম করা হবে। যেন একটি শিশুও এ টিকা থেকে বাদ না পড়ে।
সিভিল সার্জন বলেন, সব সময় আমরা যেসব কেন্দ্রে টিকা দেই সেখানে সপ্তাহে দু’দিন ইপিআই কার্যক্রম চলবে। বাকী ৪ দিন এই ক্যাম্পেইন চলবে। তিনি বলেন, এটি খাওয়ার জিনিস না, এটি ইনজেকশন। সেক্ষেত্রে বাচ্চাদের কিছুটা জ্বর আসতে পারে। তবে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই। তারপরও কোন বাচ্চার সমস্যা দেখা দিলে তা দেখার জন্য প্রতিটি উপজেলায় ব্যাড থাকবে এবং একজন মেডিকেল অফিসারকে দায়িত্ব দেয়া হবে। এর বাইরেও যে কোন সহযোগিতার জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। আমরা চাই, এ ক্যাম্পেইনকে শতভাগ সফল করতে। এ জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করছি।
সভায় বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাধারণ সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, গোলাম কিবরিয়া জীবন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেল রুশদী, চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস, প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ইব্রাহীম রনি।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেডিকেল অফিসার ডা. মো. ইছারুল্লাহ, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, শরীফ চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আল ইমরান শোভন, সাংবাদিক শওকত আলী প্রমুখ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *