জাটকা শিকারে নৌকা জাল যোগানদাতাদেরও তালিকা করে শাস্তি দেয়া হবে

চাঁদপুরে জাটকা রক্ষা কার্যক্রম সচেতনতামূলক সভা
নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক বলেছেন, ইলিশ আমাদের জাতীয় সম্পদ। এই সম্পদের সাথে জড়িয়ে আছে চাঁদপুরের নাম। নদী ইলিশের উৎপাদনে চাঁদপুর প্রথম সারিতেই। তিনি বলেন, এখানের পদ্মা মেঘনায় ইলিশের পোনা জাটকা রক্ষায় আমরা বদ্ধপরিকর। আমি জেলেদের পক্ষে। কিন্তু ঐ জেলের পক্ষে আমি এবং আমার প্রশাসন না, যারা এই নিষিদ্ধ সময়ে জাটকা নিধন করবেন। কিংবা অন্য কোন মাছ শিকার করবেন। আমরা এদের বেলায় কঠোর আইন প্রয়োগ করবো। তিনি বলেন, কান টানলে মাথা আসবেই। এর অর্থটা হচ্ছে, যারা ন্যাপথ্যে জেলেদের ইলিশের পোনা জাটকা শিকার করতে উৎসাহ দেবেন, নৌকা ও জাল যোগান দেবেন, তাদের তালিকাও আমরা তৈরি করবো। আর এরা অপরাধী জেলেদের মতো একই শাস্তি পাবেন। কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।
সদর উপজেলার হানারচর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে আয়োজিত জাটকা রক্ষা কার্যক্রম বিষয়ক জনসচেতনতামূলক সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন। জেলা প্রশাসক এ বিরাট জেলে ও এলাকাবাসীর জনসমাবেশে তিনি আরো বলেন, এই সুবিশাল নদী এলাকার মালিক রাষ্ট্র। আর এই রাষ্ট্র তথা সরকার আপনাদের মাছ শিকারে বিনামূল্যে বছরের পর বছর নদী দিয়ে রাখছে। এই জলাশয় আপনাকেই দেখে রাখতে হবে। নিষিদ্ধ সময়গুলোতে আপনাদের প্রতি জেলেকে জাল করে দিচ্ছে। সবই করা হচ্ছে আপনাদের জন্য। ইলিশসহ অন্য মাছ বৃদ্ধির জন্য। তাই আপনারা সচেতন হোন, অন্যদের মাছ ধরা থেকে বিরত রাখুন। তিনি বলেন, চালের পাশাপাশি অর্থ বরাদ্দ দেয়া যায় কিনা সেটা সরকারের চিন্তায় যেন থাকে, সেটির জন্য আমরা চেষ্টা করে যাবো। অন্যসব বিকল্প কর্মসংস্থানে গরু ছাগল পালনের ব্যবস্থা করা যায় কিনা সেটারও চিন্তা আমরা রাখলাম। সব কথার শেষ কথা, আমি শুনতে চাই না, দেখতে চাইন যে, জাটকা শিকার হচ্ছে, বিক্রি হচ্ছে। কিংবা পরিবহন হচ্ছে।
অনুষ্ঠানে আগামী ০২ মাস (মার্চ-এপ্রিল) জাটকা রক্ষা কার্যক্রমে সহযোগিতা করার জন্য হাননারচরবাসীর প্রতি জোর আহবান জানান তিনি। এ জেলা প্রশাসন এবং মৎস্য অধিদপ্তর কর্তৃক আয়োজিত এ সভায় বক্তব্য জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকির সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, চাঁদপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শানজিদা শাহানাজ, কোস্টগার্ড স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট এম আসাদুজ্জামান, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা সুলতানা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরশাদ মিয়াজি, ১৩ হানারচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস সত্তার রাঢ়ী প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক রহিম বাদশাসহ সাংবাদিকবৃন্দ, স্থানীয় অধিবাসীবৃন্দ, মৎস্যজীবীবৃন্দ এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *