জায়গা খালি না রেখে ফলজ বনজ ও ওষুধী গাছ লাগাবেন : শিক্ষামন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু সবুজ বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখতেন : যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ মুসা

আশিক বিন রহিম :

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে সারা দেশের ন্যায় চাঁদপুরেও বৃক্ষরোপণ কর্মসুচীর উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল ১২ আগস্ট বুধবার বিকেল ৩টায় টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে বাগাদী পাম্প হাউজে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি। এ সময় মন্ত্রীর পক্ষে বৃক্ষরোপণ করেন পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ মুসা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো. জামাল হোসেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বাবুল আখতার।
শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতাসহ নিহত সকলের স্মরণে মুজিববর্ষের যে বৃক্ষরোপনের কর্মসূচি গ্রহন করেছে সরকার। তারই অংশ হিসেবে আজ চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড ৩৭০টি বৃক্ষরোপণ করবেন। আমি স্বশরীরে উপস্থিত থাকতে পারলাম না। তবে ফোনে যুক্ত হলাম। আশাকরি, কর্মসূচিটি সফল হবে। আমি সকলের কাছে অনুরোধ করছি, আপনার বাড়ি কিংবা আঙিনায় কোন জায়গা খালি না রেখে ফলজ, বনজ ও ওষুধী গাছ লাগাবেন। আমাদের দেশের পরিবেশের ভারসাম্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বৃক্ষরোপণ উত্তম একটি কাজ। পরিবেশ যদি ভালো থাকে আমারা ও নতুন প্রজন্মের জন্য সেটি উত্তম।
মন্ত্রী বলেন, আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশান অনুযায়ী আমরা বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালন করছি। পানি উন্নয়ন বোর্ড যে উদ্যোগ গ্রহন করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। আমি আশাকরি এই কর্মসূচি সারাদেশে সফলভাবে বাস্তবায়ন হবে। বিশেষ করে আমার নির্বাচনী এলাকা চাঁদপুর সদর ও হাইমচরে সফলভাবে এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করতে পারবো।
তিনি বলেন, আপনাদের সকলের প্রতি অনুরোধ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। যাতে আমরা করোনা থেকে আমাদের দেশকে মুক্ত রাখতে পারি। যারা ইতোমধ্যে করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করি এবং যারা অসুস্থ্য আছেন তাদের দ্রুত সুস্থ্যতা কামনা করি। আশা করি, আমরা সকলে সুস্থ্য ও নিরাপদ থাকবো। আমি এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করছি।
পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ মুসা তার বক্তব্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি। বঙ্গবন্ধু একটি স্বপ্ন দেখতেন। তা হচ্ছে সোনার বাংলা ও সবুজ বাংলা গড়া। তারই ধারাবাহিকতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন, তারই অংশ হিসেবে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড সারাদেশে যৌথভাবে বিভিন্ন জাতের ১০ লাখ বৃক্ষরোপণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দু’টি ধাপে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে। প্রথম ধাপের অংশ হিসেবে আজ আমরা এই বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন হয়েছে। আমাদের কাজে যারা সহযোগিতা করেছেন সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড চাঁদপুর এর আয়োজনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ড চাঁদপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক বিভাগ) মো. রুহুল আমিন, নির্বাহী প্রকৌশলী (মেঘনা ধনাগোদা) পওর বিভাগ মামুন হাওলাদার, উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. পারভেজ, মো. মঞ্জুরুল হক ভুঁইয়া, উপ সহকারী প্রকৌশলী মো. ওয়াহিদুর রহমান ভূঁইয়া, মো. জুয়েল ভুঁইয়া ও মো. নুজরুল ইসলাম।
উপসহকারী প্রকৌশলী মো. ওয়াহিদুর রহমান ভূঁইয়া জানান, আজকে উদ্বোধনী দিনে পাম্প হাউজ এলাকাসহ রিংবাধে ৩৭০টি বৃক্ষ রোপণ করা হবে। এই ৩৭০টিসহ সর্বমোট চাঁদপুরে দেড় হাজার বৃক্ষরোপণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *