ধলাইতলী জনতা উবি’র সভাপতি ইউসুফ পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি :
চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার ৬নং উপাদী দক্ষিণ ইউনিয়নের ধলাইতলী জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোঃ ইউসুফ পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অনিয়মের অভিযোগ করেছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমান। তিনি অভিযোগ করে বলেন- অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ ইউসুফ পাটোয়ারী বিদ্যালয়ের পুকুর লিজের ৩০ হাজার টাকা ও প্রনোদনার (কমিটির অংশ ১৫হাজার ও ইংরেজি শিক্ষকের ১৫ হাজার) ৩০ হাজার টাকা মোট ৬০ হাজার টাকা আত্মসাত করেছে। যা বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষকবৃন্দ অবগত রয়েছেন। এছাড়া তিনি বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ নুরুল ইসলাম রাজাকে প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ দেওয়ার নাম করে ৭ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন এবং বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য নিয়োগের ব্যাপারে ভুয়া রশিদ তৈরী করে ইউনিয়ন বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক মজিব খানকে ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে সদস্য করেছেন।
এ ব্যাপারে চাঁদপুর বিজ্ঞ আদালতে এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক লিয়াকত খাঁন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। মামলাটি বর্তমানে চলমান রয়েছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমান আরো জানান, আমার বিরুদ্ধে দলীয় প্রভাব খাটিয়ে ইউসুফ পাটোয়ারী বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি, হয়রানি ও মোটা অংকের উৎকোচ দাবী করে। আমি দিতে রাজী না হলে আমাকে অত্র বিদ্যালয় থেকে গত ১১/৪/২০১৮ইং তারিখে প্রধান শিক্ষক পদ থেকে সাময়িকভাবে অব্যাহতি দেন। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চেয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে বিষয়টি অবহিত করেছি। যা তদন্তাধীন অবস্থায় রয়েছে। পরবর্তীতে ইউসুফ পাটোয়ারী ঘটনার সুষ্ঠ সমাধান করবে বলে আমার কাছ থেকে ১২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেন। বর্তমানে আমি সুষ্ঠু বিচারের আশায় এবং আমার চাকুরী স্বপদে বহাল রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু দৃষ্টি কামনা করছি।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুর রহিম খানের সাথে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে কুমিল্লা বোর্ডে আরপিটিশান চলছে। তবে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের বিষয়ে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইউসুফ পাটোয়ারী সাথে মুঠোফোনে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে শত চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষকের সাথে
এ বিষয়ে জানতে চাইলে তাঁরা জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ নিয়মবর্হিভুত। সভাপতি নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্য এ ঘটনাটি ঘটিয়েছেন। এদিকে, বিদ্যালয়ের সভাপতি ইউসুফ পাটোয়ারীর এহেন কর্মকান্ডের কারনে বিদ্যালয়ের শিক্ষা ও উন্নয়ন কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *