পুলিশের মানবিক সহায়তা পেলো শাহরাস্তির ২ শতাধিক অসহায় পরিবার

আশিক বিন রহিম :
চাঁদপুর জেলা পুলিশের মানবিক সহায়তা পেল শাহরাস্তি উপজেলার ২ শতাধিক অসহায়, কর্মহীন ও দরিদ্র পরিবার। ২৯ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে শাহরাস্তি মেহের ডিগ্রী কলেজ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে, মানবিক সহায়তা হিসেবে এই খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হয়। খাদ্য সহায়তা তুলে দেন চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ পিপিএম।

এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সুদীপ্ত রায়, কচুয়া- শাহরাস্তির সার্কেল এএসপি আবুল কালাম চৌধুরী, মেহের ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মিজানুর রহমান, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী।


পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ তার বক্তব্যে বলেন, মহামারী করোনা ভাইরাস এবং লকডাউনের কারনে হতদরিদ্র এবং নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারগুলো সাময়িক ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়েছে। সরকার তাদের নানাভাবে সহযোগিতা করছে। আমরা চাঁদপুর জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নের পাশাপাশি অসহায় মানুষদের জন্য মানবিক সহায়তার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।
বিশেষ করে যারা সরকারি-বেসরকারি কোন মাধ্যম থেকে সহায়তা পায়নি, তাদের তালিকা তৈরি করে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, আজকে আমরা শাহরাস্তি উপজেলার ২ শতাধিক পরিবারকে মানবিক সহায়তা হিসেবে চাল, ডাল, তেল, নুনসসহ খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছি। ধারাবাহিকভাবে চাঁদপুর জেলার প্রতিটি উপজেলায় এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে। আমাদের টার্গেট রয়েছে চাঁদপুরের পাঁচ থেকে ১০ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা আওতায় নিয়ে আসা।

পুলিশ সুপার বলেন, সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে আমরা বদ্ধপরিকর। তাই দায়িত্ব পালনে কখনো ককনো আমাদের কঠোর হতে হয়। তবে আমাদের এই কঠোরতা, দেশ এবং মানুষের কল্যানে। চাঁদপুর বাসীর প্রতি আমাদের অনুরোধ থাকবে, দয়া করে আপনারে সরকারের সকল নির্দেশনা মেনে চলবেন। করোনার এই মহামারি থেকো বাঁচতে স্বাস্থ্যবিধি মানা এবং সচেতন থাকার কোর বিকল্প নেই।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শরীফ চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা জাকির, শাহরাস্তি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবদুল মান্নান, শাহরাস্তি প্রেসক্লাবের সভাপতি হুমায়ুন কবিরসহ পুলিশ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তা ও সাংবাদিকবৃন্দ।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *