মতলবে বৃক্ষপ্রেমিক শাহ জাহান নার্সারি করে স্বাবলম্বী

নিজস্ব প্রতিবেদক :
গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান। একটি গাছ আগামীদিনের সম্ভল। আর এই স্লোগানকে বাস্তবায়নের লক্ষে বৃক্ষ প্রেমিক নারায়নপুরের উত্তর বারগাঁও গ্রামের শাহ জাহান প্রধান। নারায়নপুর কলেজ সংলগ্ন ৪০ শতক জমির উপর ৩৫ প্রজাতির বৃক্ষ নিয়ে নার্সারি করেছেন। নার্সারিটির নাম মায়ের দোয়া। গত ২ বছর যাবৎ শাহ জাহান প্রধান ১০ লক্ষ টাকা ব্যয় করে ৪০ শতক জমি বন্ধক নিয়ে নার্সারির বাগান করেছেন। প্রতিদিনই তিনি ২ হাজার থেকে ৩ হাজার টাকার বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ বিক্রি করছেন। আর এই আয় দিয়ে চলছে শাহ জাহান প্রধানের পরিবার। এই নার্সারিতে ৬জন কর্মচারী কর্মরত রয়েছেন। প্রতি মাসে ব্যয় হচ্ছে ৬০ থেকে ৬৫ হাজার টাকা। নার্সারিটি ঘুরে দেখা গেছে শাহ জাহান প্রধান বিভিন্ন প্রজাতির গাছ লাগিয়েছেন। এর মধ্যে ৩৫ প্রজাতির বনজ, ফলজ গাছের চারা পাওয়া যাচ্ছে। এগুলো হচ্ছে-আম, কাঠাল, সুপারী, জবেদা, মাল্টা, কমলা, বরই, বেদানা, লেংরা আম, রুপালী আম, লিচু, জাম্বুরা, আপেল, জাম, নারিকেল ও পাতা বাহারসহ ফলজ ও বনজ গাছ বিক্রি করছে। নিজের উদ্যোগে শাহ জাহান প্রধান নার্সারি করে নিজের পরিবার স্বাবলম্বি হয়েছে। আজ তাঁর পরিবারকে ১০ সদস্যের পরিবার এ নার্সারির আয়ের উপর নির্ভরশীল। বৃক্ষ প্রেমিক শাহজাহান প্রধান জানান, ৪০ শতক জায়গা বন্ধক নিয়ে ১০ লক্ষ টাকা ব্যয় করে ব্যক্তিগত উদ্যোগে মায়ের দোয়া নামে একটি নার্সারি করেছি। প্রতিদিনই ২ থেকে ৩ হাজার টাকার গাছ বিক্রি করছি। তবে সরকারিভাবে অথবা বন বিভাগ থেকে কোন সহযোগীতা বা পরামর্শ পাইনি। নিজের ব্যক্তিগত উদ্যোগে আমার ছেলে সুফিয়ানসহ আরো ৫জন কর্মচারী নিয়োগ দিয়ে নার্সারিটি করেছি। সরকারিভাবে সহযোগীতা পেলে আমার নার্সারিটির আরো বেশি প্রসারতা বৃদ্ধি পেত। আমি সরকারের বন বিভাগের সহযোগীতা চাই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *