হাইমচর বালিকার সহকারী প্রধান শিক্ষক রাধেশ্যাম মাঝি আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক :
হাইমচর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৯৭৭সালের ব্যাচের ছাত্র এবং হাইমচর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন সহকারী প্রধান শিক্ষক জনাব রাধেশ্যাম মাঝি ২২ডিসেম্বর ২০২০ মঙ্গলবার সকাল ৯ টা ৩০ মিনিটে নারায়ণগঞ্জে তার নিজের বাসায় শেষ নি:শ্সব ত্যাগ করেন ।
মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ষাট বছর। তিনি এক মেয়ে,এক ছেলে, স্ত্রী এবং অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান। কর্ম জীবনে তিনি নারায়ণগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এবং হাইমচর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার মহান পেশায় নিযুক্ত ছিলেন।
তিনি ছিলেন খুবই দক্ষ এবং আন্তরিক। শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ আন্তরিকতা দিয়ে পড়াতেন। তিনি ছিলেন সদা হাস্যোজ্জ্বল। তাঁর মৃত্যুতে এলাকায় এবং বিদ্যালয়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। চাকুরির শুরুতে তিনি চাঁদপুরের স্থানীয় পত্রিকায় সাংবাদিকতায়ও যুক্ত ছিলেন।
এছাড়াও তিনি শহীদ কাইউম পাঠাগারের উপদেষ্টা ছিলেন। শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ এবং তার আত্মার সদগতি কামনা করছি।
জেলা বাসদ-এর গভীর শোক প্রকাশ :
বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলÑবাসদ চাঁদপুর জেলা শাখার পক্ষ থেকে জেলা সমন্বয়ক কমরেড শাহাজাহানসহ জেলা নেতৃবৃন্দÑহাইমচর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক রাধেশ্যাম মাঝির মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি একাধের ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতি দায়িত্বপূর্ণ ছিলেনÑ সদালাপী সদাহাজ্জ্বোলভাবে শাষণ করতেন। অন্যদিকে সামাজিক সঙ্কট সমস্যা এবং এলাকার লোকদের কঠিন সমস্যা থেকে উদ্ধারের প্রয়োজনে দায়িত্ব থেকে দূরে থাকতে পারতেন না, এমন কি পরিবারের মধ্যে মা-বাবাসহ সংসারের অন্যান্য দায়িত্বপ্রাপ্ত সবাইকে তা পালন করতে উৎসাহিত করতেন। তিনি এমনি সমাজসেবক ছিলেন যে, জাতীয় সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসতে দ্বিধা বা শংসয়বোধ করতেন না।
এলাকার গভীর স্মৃতি বিজড়িত বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা কায়ূম স্মৃতি পাঠাগারের সম্মানিত উপদেষ্টার দায়িত্বরত ছিলেন। পাঠাগারকে সমৃদ্ধ করার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন। যেহেতু তিনি [ট্রেন্সপারেবল জব] বদলী হওয়ার মতো শিক্ষকতার চাকুরী করতেনÑ সেই সুবাধে তিনি হাইমচচর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে পি.আর. এলে নারায়নগঞ্জ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে যেতে হয়েছে। তিনি এই মহান শিক্ষকতার পেশার এল-পি-আর-এ থাকাবস্থায় গত ২২ ডিসেম্বর ২০২০ইং মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় মৃত্যুবরণ করেন। শিক্ষক রাধেশ্যাম মাঝির মৃত্যুতে জেলা বাসদের সমন্বয়ক কমরেড শাহজাহান তালুকদার, জেলা নেতা দিপালী রানী দাস, হারুনুর রশীদ, জয়দেব কর্মকার, আব্দুল হক, নজরুল ইসলাম, আব্দুর রহিম, কবির হোসেনসহ সবাই গভীর শোক ও তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *