এলজিইডির বদলিকৃত প্রকৌশলীদের নতুন কর্মস্থলে দ্রুত যোগদানের নির্দেশ

তদবীরে প্রধান প্রকৌশলীর চরম ক্ষোভ

 :: নিজস্ব প্রতিবেদক :
স্থানীয় সরকারি প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) বদলির আদেশ মানছেন না অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারী। নানা তদবীরে ঠেকাচ্ছেন আদেশ। দীর্ঘদিন ধরে চলছে এমন অনিয়ম। এসব অনিয়মরোধ এবং অধিদপ্তরের কাজের শৃংখলা আনতে অবিলম্বে বদলিকৃত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নতুন কর্মস্থলে যোগদান করার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় সরকারি প্রকৌশল অধিদপ্তর। তা না করলে সরকারি কর্মচারী বিধিমালা অনুযায়ী অসদাচরণের দায়ে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।
গত ২৪ জুন স্থানীয় সরকারি প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌলী মো. আব্দুর রশীদ খান স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, এলজিইডির সর্বস্তরের কাজের গতিশীলতা, জনবলের সুষম বন্টন, ভিন্ন ভিন্ন পদে কাজের অভিজ্ঞতা অর্জনের মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ও প্রশাসনিক কারণে জনস্বার্থে সদর দপ্তর ও মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা-ককর্মচারীদের বদলি করা হয়ে থাকে। কিন্তু লক্ষ্য করা যাচ্ছে, বদলিকৃত কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ বদলির আদেশ প্রদানকৃত কর্মস্থলে যোগদান না করে আদেশ পরিবর্তন, বদলানো, সংশোধন ও বাতিলের জন্য বিভিন্ন মহল হতে তদবির করে প্রশাসনিক জটিলতা সৃষ্টি করছেন; যা সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা ১৯৭৯ পরিপন্থি। এমনকি তাৎক্ষণিক বদলিকৃত (স্ট্যান্ডরিলিজ) কোন কোন কর্মকর্তা-কর্মচারীও জারিকৃত বদলি আদেশের নির্ধারিত তারিখে যোগদান না করে বদলির আদেশ বাতিল বা যুক্তিসঙ্গত সময় অতিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও নতুন কর্মস্থলে যোগদান হতে বিরত থাকেন এবং বদলির আদেশ বাতিলের জন্য আবেদন ও কর্তৃপক্ষের উপর বিভিন্নভাবে অযৌক্তিক চাপ সৃষ্টি করে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেন।
এমতাবস্থায়, কর্তৃপক্ষ কর্তৃক জারিকৃত সকল বদলির আদেশ মোতাবেক সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অব্যাহতি গ্রহণপূর্বক বদলিকৃত কর্মস্থলে যোগদান করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো। ব্যত্যয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তার নিয়ন্ত্রণলারী কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ এর ৩ (খ) মোতাবেক অসদাচরণের কারণে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
অধিদপ্তরের একটি সূত্র জানিয়েছে,এই অধিদপ্তরের অনেক প্রকৌশলী উপসহকারী প্রকৌশলী এবং অন্য কর্মচারীরাও প্রেষনে বদলী হয়ে জেলা পরিষদসহ অন্য স্থানে চলে যান। চাঁদপুরেও জেলা পরিষদসহ বিভিন্ন জায়গায় এমন পরিস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। এমনও দেখা গেছে, একই উপসহকারি তার মূল জায়গা এলজিইডি ছেড়ে প্রেষনে অন্য জায়গায় একাধারে ৯/১০ বছর কাজ করছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *