চাঁদপুরের কয়েকটি গ্রামে আজ থেকে রোজা শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক :
সৌদির সাথে মিল রেখে আজ ১৩ এপ্রিল মঙ্গলবার থেকে রোজা রাখছেন চাঁদপুর জেলার ৪০ গ্রামের মানুষ। ভোর রাতে সেহরী খেয়ে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে সেহরিও খেয়েছেন।
সোমবার (১২ এপ্রিল) সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে রমজান মাসের চাঁদ দেখা যাওয়ায় মঙ্গলবার সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের মানুষ রোজা রাখছেন। তাই সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে রোজা রাখছেন তারা।
জানা গেছে, ১৯২৮ সালে হাজিগঞ্জ উপজেলার সাদ্রা দরবারের মরহুম পীর মাওলানা ইসহাক (রহঃ) প্রথম বাংলাদেশে এ মতটি চালু করেন। পরবর্তীতে তাঁর অনুসারী হয়ে এসব অঞ্চলের মুসলমানগন চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল প্রতিটি ধর্মীয় উৎসব সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে পালন করে থাকেন।
এ মতে অনুসারী গ্রামগুলো হলো সাদ্রা, বলাখাল, মনিহার, অলিপুর, বড়কুল, শমেশপুর, ঝাঁকনি, রামচন্দ্রপুর, প্রতাপুর, বেলচোঁ, উভারামপুর, সুরঙ্গচাল ও গোবিন্দপুর। ফরিদগঞ্জের গ্রামগুলো হলো সাচনমেঘ, ভূলাচৌ, বিঘা, বাছপাড়া, খিলা, ওড়তলী, বালিথুবা, শোল্লা, রূপসা, গোয়ালভাওর, কড়ইতলী, নোয়ারহাট, বাশারা, পনিসাইর, কামতা, পাইকপাড়া, কাইতারা, টোরামুন্সীরহাট, মূলপাড়া, বদরপুর, তেলিসাইর। মতলবের গ্রামগুলো হলো আশ্বিনপুর, নায়েরগাঁও, পাঁচানী, দশানী, মোহনপুর, এখলাসপুর ও বেলতলী এবং কচুয়ার কয়েকটি গ্রাম।
প্রসঙ্গত, সৌদি আরবের রীতি অনুসরণে এক দিন আগে রোজা ও ঈদ পালন করে আসছেন সাদ্রা পীর মরহুম মাওলানা ইসহাক খানের অনুসারীরা। ১৯৩১ সালে প্রথম হাজীগঞ্জ উপজেলার ৭নং বড়কুল ইউনিয়নের সাদ্রা গ্রামে এ রীতি চালু করেন তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *