হাইমচরে জোয়ারের পানিতে ভেসে গেল মৎস্য খামারের মাছ

হাইমচর প্রতিনিধি :
আকস্মিক মেঘনার জোয়ারের পানিতে হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী ইউনিয়নের ১০ একর জমিতে তৈরী আখন মৎস্য খামারের প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে। শত চেষ্টায় রক্ষা করতে পারিনি মৎস্য খামারী মোহাম্মদ আলী আখন। জোয়ারের পানিতে ভেসে যাওয়ার দৃশ্য দেখে দু-চোখে শুধু পানি আর পানি দেখতে পায় এ খামারী। কোন কিছু জিজ্ঞাসা করলে বলে সব চলে গেলো আটকা।
হাইমচর উপজেলা সবচেয়ে বড় মৎস্য খামারটি গতকাল আকস্মিক জোয়ারের পানিতে ভেসে যায়। জীবনের সব কিছু বিক্রয় করে ব্যাংক থেকে লোন তুলে তৈরী করেন মৎস্য খামার। নদীর পানিতে ভেসে গেলে এ খামারীর বেচে থাকার সকল স্বপ্ন । উপজেলার মধ্যে প্রশিক্ষিত ও আত্নকর্মী ছিলেন মোহাম¥দ আলী আখন। নিজের ১০ একর জমিতে ১০টি ঝিলে প্রায় ২০ জন শ্রমিক কাজ করতো। এ সকল পরিবার আজ অসহায় অবস্থায় রয়েছে। খামারের শ্রমিকদের সাথে আলাপকালে তারা জানান মোহাম্মদ আলী ভাই আমাদের এ খামারে কাজ করার জন্য রেখেছেন। এখান থেকে বেতন নিয়ে ছেলেমেয়েদেও লেখা পড়া ও পরিবার চালাতাম । আজ হঠাৎ নদীর পানি বেড়ে গিয়ে সব মাছ ভেসে গেছে। আমরা এখন কি করবো কিছুই বুঝতে পারছিনা।
এ ব্যাপারে খামারী মোহাম্মদ আলী আখন জানান আমার ১০টি ঝিলে ১০ একর জমিতে খামার দেই। মেঘনায় নদীর পানি ৫ মিনিটের মধ্যে সব ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। শুধু চোখে দেখেলাম কিছুই করতে পারিনি। আমার খামাওে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার মাছ ভেসে গেছে। আমি জেলা প্রশাসক, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুর হোসেন পাটওয়ারী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা মৎস্য অফিসার, উপজেলা মৎস্য অফিসার আমার এ সময় পাশে দাড়ানোর জন্য অনুরোধ করছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *