অনিয়ম, কেন্দ্র দখলের অভিযোগ করলেও ভোট বর্জনের ঘোষণা দেননি বিএনপি প্রার্থী

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি তার প্রমাণ : আ’লীগ প্রার্থী
: আশিক বিন রহিম :
হাজিগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনে জোরপূর্বক কেন্দ্র দখল করে নৌকা মার্কায় সিল দেয়ার অভিযোগ করেছেন বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী আব্দুল মান্নান খান বাচ্চু। বেলা ১টায় তার নিজ বাসভবনে তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। তবে অনিয়মের অভিযোগ করলেও ভোট বর্জন করবেন না বলে জানান তিনি। বিকেল ৩টায় আবার সংবাদ সম্মেলনে আপডেট জানানোর কথা বলেন। তবে পরবর্তীতে তার আর কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
আব্দুল মান্নান খান বাচ্চু বলেন চাঁদপুর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রতিশ্রুতি প্রদান করায় আমি নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলাম। ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সেই পরিবেশ এবং ভোটের আমেজ বিরাজমান ছিল। কিন্তু ৩০ তারিখ রাত বারোটার পর থেকে সেই চিত্র সম্পূর্ণরূপে পাল্টে যায়। ভোর থেকে ব্যাপক ভোটারদের উপস্থিতি ভোটগ্রহণ শুরু হলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয় শাসকদলীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।
পৌরসভার ২০টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৯টি কেন্দ্র থেকে বিএনপির এজেন্টদের মারধর করে বের করে দেয়া হয়। স্থানীয় প্রশাসনের কাছে অভিযোগ দিয়েও কোন সুরাহা হয়নি। পৌরসভার ৫,৬,৭ও ৮ নং ওয়ার্ডের ভোট কেন্দ্র জোরপূর্বক দখল করে ব্যালট পেপারে নৌকা মার্কায় সিল দিয়ে বাক্স ভর্তি করে রাখে। তিনি আরো বলেন, সুষ্ঠু পরিবেশে নির্বাচন হলে এবং ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আমার কাছে অন্তত ১০ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হত। আমি নির্বাচন বর্জন করব না। এতে করে কাউন্সিলরদের ওপর প্রভাব পড়বে। তাছাড়া আমি চাই ভোটাররা দেখুক যে ভোট চোরের দল কি করে মানুষের ভোটাধিকার হরণ করে।
এদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী (বর্তমান মেয়র) মাহাবুবুল আলম লিপন বলেন, তারা যে অভিযোগ করেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং বানোয়াট। প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি তার প্রমান। ভোটাররা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিচ্ছে। বরং কোন কোন কেন্দ্রের বাইরে বিএনপির লোকেরাই সহিংসতারও চেষ্টা চালিয়েছে। যেভাবে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাররা তাদের ইচ্ছামতো ভোটাধিকার প্রয়োগ করছে তা শেষ পর্যন্ত চলে তবে, তিনি নির্বাচিত হওয়ার শতভাগ আশা ব্যক্ত করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *