চাঁদপুর পদ্মা-মেঘনায় বালু উত্তোলনের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ জেলা আ.লীগের

জাতীয় সম্মেলনের আগেই সারাদেশে উপজেলা ও জেলা সম্মেলন শেষ করা হবে : মাহবুব-উল আলম হানিফ
চাঁদপুর প্রতিদিন রিপোর্ট :
দলকে সুসংগঠিত করতে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাথে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সাথে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে এ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে দলকে ঐক্যবদ্ধ করা, নদী থেকে যত্রতত্র অপরিকল্পিত অবৈধভাবে বালু উত্তোলন যারা করছে তাদের দল থেকে বহিস্কার করা, দলের নাম ভাঙিয়ে যারা বিভিন্ন অপকর্ম তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।
সভায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, সারাদেশের তৃণমূল আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করতে হবে। তৃণমূলকে সংগঠিত করার কোনো বিকল্প নেই। এর মাধ্যমেই আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয় সুনিশ্চিত করতে হবে। আওয়ামী লীগের এই কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, বাংলাদেশে বিএনপির অপরাজনীতি চিরতরে নিশ্চিহ্ন করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের আগামী জাতীয় সম্মেলনের আগেই সারাদেশে ওয়ার্ড ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা সম্মেলন শেষ করা হবে। আমাদের টার্গেট রয়েছে চলতি মার্চের মধ্যে ওয়ার্ড ইউনিয়ন সম্মেলন শেষ করা হবে। এরপর এপ্রিলে রোজার মাস ও ঈদের পরে মে মাসের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা সম্মেলন কার্যক্রম শেষ করা হবে।
কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সমন্বায়ক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপিদর সভাপতিত্বে এবং জাতীয় সংসদের হুইপ ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপিদর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংসদ মহীউদ্দীন খান আলমগীর, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সেলিম মাহমুদ, চাঁদপুর-২ আসনের সাংসদ অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রুহুল, চাঁদপুর-২ আসনের সাংসদ মোঃ শফিকুর রহমান, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসির উদ্দীন আহম্মেদ, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযুদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সহ-সভাপতি ইউসুফ গাজী, ডাক্তার জে আর ওয়াদুদ টিপু, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রহমান, আব্দুর রশিদ সরদার, মঞ্জু আহমেদ, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ, অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন এসডু পাটোয়ারী, শাহীর হোসেন পাটোয়ারী, অ্যাভোভেকট মুজিবুর রহমান ভূঁইয়াসহ নৌকা মার্কা নিয়ে নির্বাচিত পৌর মেয়র, নৌকা মার্কা নিয়ে নির্বাচিত সকল উপজেলার চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকগণ বক্তব্য রাখেন।


এদিকে বৈঠক সম্পর্কে জানতে চাইলে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, সভায় দলের সাংগঠনিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। দ্রুত কিভাবে উপজেলাগুলোর সম্মেলন করা যায়, এগুলো হয়ে গেলে তারপর জেলা কমিটির সম্মেলন করা হবে। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে বলেছি- আমরা আপনাদেরকে সহযোগিতা করবো। এগুলো আপনাদেরকে করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, এছাড়া নদী থেকে অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের ফলে চাঁদপুর ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে- এ বিষয়ে সবাই সোচ্চার আছেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আলহাজ্ব ইউসুফ গাজী বলেন, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সাংগঠনিক অবস্থা সম্পর্কে বিভিন্ন বিষয় জানতে চেয়েছেন। নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন বিষয় তাদেরকে জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার আবার বৈঠক হবে। সেখানে আলোচনার পর হয়তো সিদ্ধান্ত দিতে পারেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল বলেন, সংগঠনিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে দলকে ঐক্যবদ্ধ করা। এছাড়া অবৈধ ও অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সুপারিশ ছিল। এ অবৈধ বালু উত্তোলনের সাথে যারা থাকবে আর তাদের কারণে দল ক্ষতিগ্রস্ত হবে তারা দলের ভেতরে থাকতে পারে না। তাই তাদেরকে দল থেকে বহিস্কারের দাবি করা হয়েছে।
এদিকে চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান বলেন, মূলত আজকের সভায় সাংগঠনিক বিষয়েই আলোচনা হয়েছে। এছাড়া সভায় আমরা বলেছি-বিভিন্ন ইস্যুতে দলের একজন আরেকজনের বিরুদ্ধে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দেয়া ঠিক না। দলের ভেতরে স্বেচ্ছাচারিতা- এগুলো দূর করা। দলের সম্মেলন করা। কেউ কেউ প্রস্তাব দিয়েছেন- জেলা কমিটি ভেঙে দিয়ে নতুন আহ্বায়ক কমিটি করার জন্য। তবে এসব বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। শুধুমাত্র আলোচনা হয়েছে।
তিনি বলেন, আমাদের কথা শুনে কেন্দ্রীয় নেতারা বলেছেন, আগামী দিনে আলোচনার মাধ্যমে যেটি সুন্দর হয় সে সিদ্ধান্ত দিবে। বক্তব্য শুনে সভা মূলতবি করা হয়। আগামী দিন সকাল ১১টায় বসে করণীয় সম্পর্কে দিক নির্দেশনামূলক সিদ্ধান্ত দিবন।
অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের বিষয়ে কোন আলোচনা হয়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বালু উত্তোলনতো আওয়ামী লীগ ঠিক করতে পারবে না। তারপরও বিষয়টি নিয়ে কেউ কেউ বলেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.